January 17, 2021, 2:54 am

কুষ্টিয়াতে ঈদ করছেন তিন সাংসদ, স্বাস্থ্যগত কারনে ঢাকাতেই ইনু

শরিয়তউল্লাহ সুমন/
কুষ্টিয়াতে ঈদ করছেন জেলার চার সাংসদের তিনজন।স্বাস্থ্যগত কারনে ঢাকাতেই থাকছেন একজন। ইতোমধ্যে কুষ্টিয়তে এসে নিজ নিজ সংসদীয় এলাকাতে অবস্থান করছেন তিনজন। কুষ্টিয়া-৩ আসনের সাংসদ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ গত শনিবার সকালে জেলায় আসেন। ঐদিনই সকালেই তিনি জেলা প্রশাসনের সাথে জেলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সভা করেন।
তার ঘনিষ্ঠ জনেরা জানান তিনি ২৭ মে পর্যন্ত তার এলাকাতেই থাকছেন। যদিও দলের অনেক কেন্দ্রীয় নেতা এবার নানা কারনেই নিজ নিজ এলাকায় যেতে পারেননি। অনেকেই ঢাকাতে থেকেই নিজ নিজ প্রতিনিধিদের মাধ্যমে এলাকার জনগনের জন্য এই দুর্যোগকালীন পরিস্থিেিত দেখভাল করছেন।
এ ব্যাপারে হানিফ জানান তিনি তাঁন নির্বাচনী এলাকাতেই থাকতে পছন্দ করেন। বিশেষ কোন কারন না ঘটলে তিনি ছুটে আসেন এলাকায়। এবার এই ঈদ মুর্হুতে তার উপর বর্তেছে আরো একটি বড় দায়িত্ব। কয়েকদিন পূর্বের ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আগাতে আগুনে পুড়ে যায় কুষ্টিয়ার ১৩২ কেভির বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইনের মাষ্টার ট্রান্সফরমার। ফলে জাতিয় গ্রীড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে কুষ্টিয়ার লক্ষাধিক গ্রাহক প্রায় তিনদিন ধরে চরে এ অবস্থা। হানিফ নিজে উদ্যোগী হয়ে মন্ত্রনালয় থেকে সংগ্রহ করেন কয়েকটি মাস্টার ট্রান্সফরমার। ঢাকা থেকে বিশেষজ্ঞ কর্মীও নিয়ে আসার ব্যবস্থা করেন। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।
গতরাতে তিনি দৈনিক কুষ্টিয়াকে জানান তিনি সর্বতোভাবেই প্রতিশ্রুতবদ্ধ। কেন্দ্রীয় নেতা হবার তার কার্যক্রমের আওতা অনেরক বড়।
“সবকিছু ছাপিয়ে আমি আমার এলাকার জনগনের কাছে সবচে’ বেশী দায়বব্ধ,” হানিফ জানান।
ওদিকে স্বাস্থ্যগত কারনে ঢাকাতেই থাকছেন কুষ্টিয়া-২ আসনের সাংসদ ও জাতিয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) কেন্দ্রীয় সভাপতি হাসানুল হক ইনু। এ বিষয়ে জাসদ মিরপুর উপজেলার সাধারন সম্পাদক আহমদ আলী জানান তার স্বাস্থ্য ভাল না থাকায় তিনি এবার কুষ্টিয়াতে ফিরতে পারেননি।
তবে গতরাতে ফোনে তিনি দৈনিক কুষ্টিয়াকে জানান এই দূর্যোগকালীন তিনি সবসময়ই তার এলাকার জনগনের খোঁজখবর রেখেছেন। তিনি ও তার স্ত্রী কেন্দ্রীয় নারী জোট নেত্রী আফরোজা হক রিনা ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ প্রতিমুহুর্তেই এলাকার মানুষের সকল প্রয়োজন মেটাতে সচেষ্ট রয়েছেন।
কুষ্টিয়া-১ এর সংসদ সদস্য আকম সরোয়ার জাহান বাদশা কয়েকদিন আগেই এলাকাতে আসেন। তিনি এলাকাতে সাদারন মানুষের মাঝে কয়েক দফা ত্রাণ বিতরণ করেন। ফোনে তিনি জানান করোনার ঝুঁকি থাকলেও তার নির্বাচনী এলাকার মানুষ তাকে এই দূর্যোগে কাছে পেতে চান। তিনি একই অনুভূতি থেকেই এলাকায় অবস্থান করছেন।
কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ জানান তিনি করোনাকালীন সময়ে একাধিকবার তার এলাকায় এসেছেন। সাধারন মানুষ যারা কর্মহীন হয়ে পড়েন তাদের পাশে থেকেছেন।
“আমি বেম কয়েকদিন এলাকাতে থাকবো। সামাজিক দুরুত্ব মেপে তিনি সাধারন মানুষের সাথে মিশবেন তাদের সুখ-দুঃখের কথা শুনবেন বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন..


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পুরোনো খবর এখানে,তারিখ অনুযায়ী

MonTueWedThuFriSatSun
    123
18192021222324
25262728293031
       
     12
31      
      1
2345678
16171819202122
23242526272829
3031     
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829 
       
© All rights reserved © 2021 dainikkushtia.net
Design & Developed BY Anamul Rasel